NISSAN ULPATH-এর ব্লগ

প্রিন্ট প্রকাশনা

‘যুবরাজ তারেক রহমান’ -এর রাজত্বকাল : ২০০১ – ২০০৬

লিখেছেন: NISSAN ULPATH

‘যুবরাজ তারেক রহমান’ -এর রাজত্বকাল : ২০০১ – ২০০৬

” ২৭ আগস্ট ২০০৩ ” : প্রশাসনে নগ্ন দলীয়করণ !! প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আজ ‘সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের – SSB ‘ প্রস্তাবিত – ‘প্রমোশন লিস্ট’ অনুমোদন করেন | এতে সম্পূর্ণ দলীয় বিবেচনায় ৩২৮ জন সিনিয়র কর্মকর্তাকে ডিঙিয়ে ‘দলীয় অনুগত’ ১৪৬ জনকে পদোন্নতি দিয়ে ‘অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্ম-সচিব’ পদে বসানো হয় | একটি বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করে যে , প্রধানমন্ত্রীর অফিস
ও সংস্থাপন মন্ত্রনালয়ের কয়েক কর্মকর্তার যোগসাজশে সম্পূর্ণ দলীয় বিবেচনায় এই অপকর্মটি সম্পাদিত হয় | সূত্র আরো জানায় , ওই ১৪৬ জনের মধ্যে পদোন্নতি বঞ্চিত কাজী আমিনুল ইসলাম এবং মোশারফ হোসেন , যাহারা ১৯৮১ ব্যাচের বিসিএস পরীক্ষায় মেরিট লিস্টে যথাক্রমে ‘প্রথম ও দ্বিতীয়’ স্থান অধিকার করেন , তাহারা দুইজনই শুধুমাত্র প্রশাসনে দলীয়করণের নীলনকশা অনুযায়ীই পদোন্নতি বঞ্চিত হন | তাহাদের একমাত্র দোষ ছিলো – তাহারা বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের যথাক্রমে খাদ্য প্রতিমন্ত্রী ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু এবং অর্থমন্ত্রী এসএমএস কিবরিয়ার ‘P.S’ ছিলেন | সূত্রটি জানায় – ওই পদোন্নতির লিস্টে শিক্ষা , মেধা , কর্মক্ষেত্রে দক্ষতা , ‘ট্র্যাক রেকর্ড’ কোনকিছুই বিবেচনায় নেয়া হয় নেই – শুধুমাত্র নগ্ন দলীয় আনুগত্য ছাড়া | এছাড়াও , গত ‘দুই’ বছরে ৪ দলীয় জোট সরকার আরও ‘৮১৩ জনকে’ শুধুমাত্র দলীয় বিবেচনায় ‘উপ-সচিব , সহকারী সচিব ও যুগ্ম-সচিব’ পদে পদোন্নতি দিয়েছে !! .. এইসব ঘটনার পর প্রশাসনের সর্বত্র ক্ষোভ বিরাজ করছে এবং অনেক পদোন্নতি বঞ্চিত যোগ্য সিনিয়র কর্মকর্তাকে কাঁদতে দেখা গ্যাছে ||

** .. এখন ‘খালেদা জিয়া’ নিজে এবং তার দলীয় নীতি-নির্ধারক পর্যায়ের নেতারা ( যারা তখন রাঘব বোয়াল মন্ত্রী ছিলো ) বর্তমান আওয়ামী লীগ নেতৃত্তাধীন মহাজোট সরকারকে প্রায় প্রতিদিনই ‘প্রশাসনের সর্বত্র দলীয়করণের’ অপবাদ দিয়ে জনগনকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে এবং তাদের সাথে সুর মিলিয়ে ‘পাকমন’ তথাকথিত কিছু বুদ্ধিজীবিও বিভিন্ন টিভির ‘টক শো’ – ‘গোল টেবিল’ চাপড়ে বেড়াচ্ছে … আর ‘খালেদা জিয়া’ তো প্রায় প্রতিদিনই মিথ্যাচার করেই চলেছে – ” প্রশাসনে দলীয়করণের কারণে – দেশের মানুষ একদম ভালো নেই ” .. ইত্যাদি ইত্যাদি !! ..

এ লেখার লিংক: http://projonmoblog.com/nissan-ulpath/20032.html



মন্তব্য করুন