সময়ের আওয়াজ-এর ব্লগ

প্রিন্ট প্রকাশনা

অপেক্ষায় আছি…

লিখেছেন: সময়ের আওয়াজ

1455854_615210081879361_1569793963_n

 

গণজাগরণ চত্বর থেকে: দীর্ঘ ৪২ বছরের অপেক্ষার প্রহর শেষ হয়েও হলো না। শেষ মুহুর্তে স্থগিত হলো জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকরের রায়। ফলে বাড়লো আরও আপেক্ষা। কবে, কখন শেষ হবে এ অপেক্ষার পালা তাও অজানা। তবে মানবতারিরোধী আপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত কাদের মোল্লার ফাঁসি না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরতে চাননা গণজাগরণ চত্বরে সমবেতরা।

একটি সোলার টুকরায় দুটি শব্দে লেখা ‘অপেক্ষায় আছি…’ এই বাক্যটি দিয়েই গণজাগরণের কর্মীরা জানান দিচ্ছেন মনের কথা। বাক্যটির চারপাশে মোমবাতির আলো জ্বালিয়ে এবং বাঁশের লাঠি দিয়ে ঘিরে পাহারা দিচ্ছেন কয়েকজন কর্মী। এই প্রতিকের মাধ্যমেই তারা বুঝিয়ে দিচ্ছেন মনের মধ্যে জাগ্রত আলো কেউ নেভানোর চেষ্টা করলে তা প্রতিহত করা হবে সর্বাত্মকভাবে।

একটু দূরেই বিরামহীনভাবে চলছে একের পর এক স্লোগান। “শাহবাগ ঘুমায় না, শাহবাগ জেগে থাকে। আর কোনো দাবি নাই, কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই। আর কোনো সময় নাই, কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই। আর কোনো রায় নাই, কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই। আর কোনো কথা নাই কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই। দড়ি লাগলে দড়ি নে, কাদের মোল্লার ফাঁসি দে। বুকের মধ্যে জ্বলছে আগুন, সারা বাংলায় ছড়িয়ে দে। আমার মাটি আমার মা, পাকিস্থান হবে না।” এসব স্লোগানের মধ্য দিয়ে গণজাগরণ কর্মীরা তাদের মনের কথা ও ক্ষোভ জানিয়ে দিচ্ছেন।

‘অপেক্ষায় আছি…’ বাক্যটির চারপাশে মোমবাতির আলো জ্বালিয়ে এবং বাঁশের লাঠি দিয়ে ঘিরে বসে থাক এক কর্মী নিজেকে সাগর পরিচয় দিয়ে বলেন, মুখে কিছু বলতে চাই না। এই প্রতীক দিয়েই বুঝিতে দিতে চাই কি চাই।

সাগর বলেন, আমাদের দাবি একটাই রাজাকারের ফাঁসি চাই। রাজাকার কাদের মোল্লার ফাঁসি না হওয়া পর্যন্ত শাহবাগ ছাড়বো না। প্রয়োজনে নিজেদের রক্ত দিয়ে হলেও ফাঁসির দাবি আদায় করে ছাড়বো। এর আগেও কাদের মোল্লার রায় নিয়ে নাটক হয়েছে। এবার আর কোনো নাটক দেখতে চাই না। ফাঁসি কার্যকর নিয়ে কেউ কোনো আপোস করলে তার ফল ভালো হবে না।

মঙ্গলবার রাতে মানবতাবিরোধি আপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকরের রায় স্থগিত হওয়ার পর থেকেই ফাঁসির দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠে শাহবাগের গণজাগরণ চত্বর। আতঙ্ক ছড়াতে দুর্বৃত্তরা কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটালেও নিজেদের দাবি আদায়ে অটল রয়েছেন কর্মীরা। স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে রেখেছেন শাহবাগ চত্বরসহ আশপাশ। নিজেদের দাবি উপস্থাপনের পাশাপশি দালাল ও আপোসকারীদের প্রতি হুঁশিয়ারিও উচ্চারিত হচ্ছে স্লোগান থেকে।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত শাহবাগ ছাড়বেন না তারা।

এদিকে শেষ মুহুর্তে কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকরের রায় স্থগিত হওয়াকে ষড়যন্ত্র মনে করছেন গণজাগরণের কিছু কর্মী।

গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠক মারুফ রসুল শেষ মুহুর্তে ফাঁসি কার্যকরের রায় স্থগিত হওয়াকে ‘প্রাসাদ ষড়যন্ত্র’ বলে উল্লেখ করেছেন।

মারুফ রসুল বলেন, শহীদদের রক্তের ঋণ কিছুটা শোধ করতে কুখ্যাত রাজাকার কাদের মোল্লার ফাঁসির জন্য সারা জাতি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। এমন সময় তা স্থগিত করা হলো। এ স্থগিত কার স্বার্থে তা জাতি জানতে চাই।

দেশ ও জাতীকে কলঙ্কমুক্ত করতে গণজাগরণ চত্বরে শতাধিক মানুষের সমাগম হলেও তাদের জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো বাড়তি নজরদারি লক্ষ্য করা যায়নি এলাকাটিতে। তবে গণজাগরণ কর্মীরা নিজেরাই গড়ে তুলেছেন নিরাপত্তা বলয়। শাহবাগ চত্বরের প্রতিটি প্রবেশ মুখেই লাঠি নিয়ে অবস্থান করছেন তারা।
Shipon-1bg20131211070049

 

সাঈদ শিপন বাংলানিঊজ২৪কম

এ লেখার লিংক: http://projonmoblog.com/newspaper/26106.html



মন্তব্য করুন