কিন্তু-এর ব্লগ

প্রিন্ট প্রকাশনা

অনুদান গ্রহণ করাটা কতটুকু যুক্তি সঙ্গত ছিল ?

লিখেছেন: কিন্তু

আজ সকালে ১৮ই মার্চ ২০১৪ মাননীয় মন্ত্রী ইনু সাহেব মহোদয় বেশ আবেগ জড়িত কণ্ঠে উল্লেখ করলেন ২৬ মার্চের জাতীয় সংগীত গাইবার উৎসবে ইসলামী ব্যাঙ্কের অনুদান ৩ কোটি টাকা ব্যবহার করা হবে না, জনাব ইনু সাহেব ব্যক্তিগত ভাবে মনে করেন ইসলামী ব্যাংকের টাকাটা ফেরত দিলেই ভালো হয় | সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মশাই জনাব নুর সাহেব উল্লেখ করলেন ৩ কোটি এই খাতে ব্যাবহার করা হবে না | বিষয়টা কি দাঁড়ালো , ইসলামী ব্যাংকের অনুদানের টাকাটা সরকারের কাছে গচ্ছিত আছে | দুজন মন্ত্রীর কেউই এখানে বলেন নাই যে টাকা নেয়া হয় নাই | এখন আমাদের জানার আগ্রহ ইসলামী ব্যাংক এই ৩ কোটি টাকা গত ১৪ই মার্চ ২০১৪ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কি খাতে হস্তান্তর করে ? বিভিন্ন পত্রিকাতেও যখন এই সংবাদ পরিবেশিত হয়, সরকারের পক্ষ থেকে কোনই প্রতিবাদ করা হওয়ায় নাই, ১৫, ১৬ ,১৭ তারিখ পর্যন্ত আমরা জানি জাতীয় সংগীত খাতে ইসলামী ব্যাঙ্কের ৩ কোটি টাকার অনুদান সরকারের কাছে চলে আসে এবং এখন পর্যন্ত সেই টাকা এই একি খাতে গচ্ছিত আছে (২৬এ মার্চ জাতীয় সংগীত উৎসব খাত) অন্তত পত্রিকাতে এই সংবাদটা পরিবেশিত হয়, এখন ৩ দিন পর সংবাদ পত্রিকা গুলোকে ভুল সংবাদ পরিবেশন করেছে সে কোথাও বলা যাচ্ছে না, ভুল সংবাদ হলে তো সরকার অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করতো অনেক আগেই |
আমাদের প্রশ্ন, প্রথম অবস্থায় ইসলামী ব্যাংক থেকে ২৬ মার্চ উপলক্ষে এই অনুদান গ্রহণ করাটা কতটুকু যুক্তি সঙ্গত ছিল ? টাকাটা যদি গচ্ছিত থেকেই থাকে, তবে সেই টাকা কি ফেরত দেয়া হবে ?
যদি টাকাটা ফেরত না দেয়া হয় তবে এই ৩ কোটি টাকা কোন খাতে ব্যাবহার করা হবে ?
অনুদানের টাকা কি এক খাত থেকে অন্য খাতে ব্যাবহার করা যাবে ?
যদি এই টাকা অন্য খাতে ব্যাবহার করা হয় তাতে কোনো সাংবিধানিক জটিলতা সৃষ্টি হবে কি ?
জাতীয় সংগীত উৎসবে ইসলামী ব্যাংকের অনুদান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কতটুকু যুক্তি সঙ্গত ?
সরকারের কাছে কি আমাদের এইসব প্রশ্নের উত্তর পাবার অধিকার আছে ?
–কিন্তু–

এ লেখার লিংক: http://projonmoblog.com/kintu/28840.html



মন্তব্য করুন