Farzana Sonia-এর ব্লগ

প্রিন্ট প্রকাশনা

দয়া করে ক্রিকেটকে কলঙ্কিত করবেন না

লিখেছেন: Farzana Sonia

রাজনৈতিক খবরের ডামাডোলে আজকে ছোট্ট একটি খবর হয়ত অনেকের চোখ এড়িয়ে যাবে। একই সাথে খবরটি আমাদের দেশের জন্য অসম্মানজনক, দুঃখের এবং উদ্বেগের। আর তা হল ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৭ ম্যাচ সিরিজের বাকী ৬টি ম্যাচ না খেলেই দেশে ফিরেছে । কারন চট্টগ্রামে তাদের হোটেলের সামনে ককটেল ফাটানো হয়েছে, তাই নিরাপত্তার ঝুঁকিতে তারা খেলবে না ।
সাম্প্রতিক সময়ে যে কয়টি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্য বিশ্বব্যাপী সমাদৃত হয়েছে এবং এদেশকে সম্মানের আসনে অধিষ্ঠিত করেছে তার মধ্যে অন্যতম প্রধান হচ্ছে ক্রিকেট। স্মৃতি হাতড়ালেই মনে আসে ৯৬ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের ম্যাচের কথা। ঐতিহাসিক সেই ম্যাচে ১ বলে ১ রানের ঘোষণায় সমগ্র জাতি এক হয়ে প্রার্থনা করেছিল। তখন থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের জয়রথের যে যাত্রা শুরু হয়েছিল দিন দিন ঊর্ধ্বমুখীই হয়েছে। সেদিনের বিজয় সারা দেশে আনন্দের জোয়ার এনেছিল। যার ফলে বাংলাদেশ অর্জন করেছিল ওয়ানডে স্ট্যাটাস এবং বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা। আর প্রথমবারের যাত্রায়তো পুরো বাজিমাত । স্কটল্যান্ড আর পাকিস্তানকে পরাজিত করে বীরোচিত অভিষেকে জানান দিয়েছিল বাংলাদেশ আসছে আর অর্জন করেছিল মর্যাদার টেস্ট স্ট্যাটাস।
বহু চড়াই-উতরাই পেরিয়ে আজকের বাংলাদেশ ক্রিকেট বর্তমান অবস্থানে পৌঁছেছে। TEST, ONE DAY, আর T20 সব ধরনের ক্রিকেটে যেকোনো পরাশক্তির দল বাংলাদেশকে সমীহ করে। এখন আমাদের দল জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামে এবং আধিপত্য বজায় রাখে প্রতিপক্ষের ওপর। সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ডকে ধবল ধোলাই করেছে আবারও। এই একটি মাত্র জায়গায় বাঙালি দল-মতের ঊর্ধ্বে উঠে একত্রিত হয়। এশিয়া কাপে বাংলাদেশ যখন ভারতকে পরাজিত করে তখন নাসির, তামিম আর মাসরাফির হাসিতে হেসেছে পুরো বাংলা আবার যখন হেরেছে ফাইনালে তখন মুসফিক, সাকিব আর বিজয়ের কান্নাতে কেঁদেছে সমগ্র বাংলাদেশ। এই খেলার জন্য মাঠে ছুটেছেন প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেত্রীসহ সকল পেশার, সকল শ্রেণির মানুষ। তাছাড়া ২০১১ সালের বিশ্বকাপ যৌথভাবে আয়োজনে সাফল্য দেখেছিয়েছে।
আগামী ২০১৪ সালের T20 বিশ্বকাপের (পুরুষ-মহিলা) আয়োজক বাংলাদেশ তাই নিরাপত্তার জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সফর বাতিল করা আমাদের জন্য এক অশনিসংকেত। সকলেই জানি পাকিস্তান থেকে ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত বছর ধরে। দেশময় চলমান সহিংসতায় যদি আইসিসি কোন কঠোর সিদ্ধান্ত গ্রহন করে তবে আমাদের গৌরবের ক্রিকেটের পরিনতি কি হবে? আমাদের তো পাকিস্তানের মত দুবাই(২য় হোম গ্রাউনড) আমাদের নেই। পাকিস্তান বা ভারত চায় না আমরা বিশ্বকাপ আয়োজন করি। তাই তারা এই সুযোগ নেবেই।
ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে উদাত্ত আহবান কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করুন। সরকার ও বিসিবিকে দক্ষতার সাথে পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হবে। রাজনৈতিক দলগুলোকে বলব আপনাদের কর্মকাণ্ডের জন্য বাংলাদেশের অনেক সম্ভাবনা অঙ্কুরেই বিনষ্ট হয়েছে। পোশাক শিল্প ধুঁকে ধুঁকে চলছে।আবার ক্রিকেটটাকে রেহাই দিন দয়া করে।
আমরা ২০১৪ বিশ্বকাপ সফল আয়োজন করে পৃথিবীকে আরও একবার জানাতে চাই বাঙালি সব পারে। বাঁচুক দেশের আর ক্রিকেটের সম্মান। দেশটা তো আমাদেরই। এদেশ ব্যর্থ রাষ্ট্র হবে না কোন ভাবেই। তাই আমাদেরও নিজেদের জাগতে হবে। হাতে হাত রেখে চললে জয় আমাদের আসবেই।
জয় বাংলা।

এ লেখার লিংক: http://projonmoblog.com/farzana-sonia/26091.html



মন্তব্য করুন