AZAD-এর ব্লগ

প্রিন্ট প্রকাশনা

খোলা বাতায়ন

লিখেছেন: AZAD

সক্রেটিসের মোরগ !!!
———————–
সক্রেটিসের মৃত্যুকালীন সময়, হেমলক বিষ পান করা শেষ । বন্ধুরা সক্রেটিসের অনাকাংখিত মৃত্যুর জন্য কেউ বিদ্রোহী হয়ে উঠতে ,কেউবা প্রতিবাদ করতে চাচ্ছেন সরাসরি ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে- তাদের অন্যায় বিচারের,অন্যায় আদেশের পাল্টা জবাব হিসাবে। বলা হয়েছিল, হেমলক বিষ পান করে পায়চারি করতে করতে যখন তাঁর পা ধরে আসবে, তখন শুয়ে যাবেন। অর্থাৎ সমস্ত শক্তি ক্ষয় হয়ে প্রাণ বায়ু বেড়িয়ে যাবার আগ মুহুর্তে তিনি শুয়ে পড়বেন । সক্রেটিসের বেলায় যে আদেশ তৎকালীন এথেন্সের ক্ষমতাসীনরা দিয়েছিলো তা কিন্তু সক্রেটিস্ কে সরিয়ে দেয়ার জন্য। এটা ছিলো পৃথিবীর আলো-বাতাস থেকে সক্রেটিস কে বঞ্চিত করে তার দেহকে মানুষের দৃষ্টির বাইরে নিতে অপচেষ্টা মাত্র। এথেন্সের ক্ষমতাসীনরা ভাবতেই পারেনি মানুষের দেহ অদৃশ্য করা যত সহজ, তার চেয়ে লক্ষ কোটি গুণ কঠিন মানুষের সত্য, সুন্দর,ন্যায়, কল্যাণ বিষয়ক চিন্তাকে ডুরে সরিয়ে রাখা। তাৎক্ষনিক ভালো-মন্দ বিচার ই শেষ বিচার নয়। শেষ বিচারটি সময় ই করে থাকে এবং সেই সময়ের চিন্তাশীল মানুষরাই শেষ বিচারের শ্রেষ্ঠ বিচারক। সক্রেটিস মৃত্যুর পুর্ব মুহুর্তে যে কথাটি উচ্চারণ করেছিলেন তাও এক বিস্ময়কর ঘটনা। দার্শনিক সক্রেটিস মৃত্যু যন্ত্রণাকে উপেক্ষা করে শান্ত ও উদ্বেগহীন কণ্ঠে শীষ্য ক্রিটোকে বল্লেন-’ক্রিটো, আস্ক্লপিয়াস আমার কাছে একটা মোরগ পাবে, তুমি কি মনে করে এই ঋণ শোধ করে দেবে ?” মানুষের প্রতি কত ভালবাসা এবং ন্যায়বোধ তীব্র হলে শুধুমাত্র ধারকরা মোরগটি ফেরত দেয়ার কথা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগের আগেও বলতে পারেন !!! চিন্তার বিষয় অবশ্যই ।

এ লেখার লিংক: http://projonmoblog.com/azad/18693.html



মন্তব্য করুন